মাধ্যমিক পড়াশোনা

মাসি পিসি গল্পের সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর ২০২২

অনুসন্ধান করে আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ জানাই। আপনি যদি ইতিমধ্যে মাসি পিসি গল্পের সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর ২০২২ অনুসন্ধান করে থাকেন তবে সঠিক জায়গায় এসেছেন। প্রশ্নের উত্তর গুলো পাশাপাশি দেওয়া হয়েছে। আপনাদের সিলেবাস ও পাঠ্য সম্পর্কিত আরো প্রশ্নোত্তর আমাদের সাইটে খুঁজে পাবেন। চলুন শুরু করা যাক।

মাসি পিসি গল্পের সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর

সৃজনশীল প্রশ্ন নম্বর ১

এইখানে তাের বুজির কবর পরীর মতন মেয়ে,
বিয়ে দিয়েছিনু কাজিদের বাড়ি বনিয়াদি ঘর পেয়ে।
এত আদরের বুজিরে তাহারা, ভালােবাসিত না মােটে,
হাতেতে যদিও না মারিত তারে শত যে মারিত ঠোটে।

ক. অল্পদিন আগে শ্বশুরবাড়িতে কে মরেছে?

খ. আহ্লাদির ওপর নির্মম নির্যাতন চালিয়ে কে পৈশাচিক আনন্দ পেত?

গ. উদ্দীপকের বুজির ওপর নির্যাতনের সঙ্গে মাসি-পিসি’ গল্পের আহ্লাদির ওপর নির্যাতনের বৈসাদৃশ্য ব্যাখ্যা কর। 

ঘ. নারীর প্রতি পুরুষের অমানবিকতার প্রামাণ্য দলিল উদ্দীপক ও মাসি-পিসি’ গল্পের বধূদের ওপর নির্যাতন। বিশ্লেষণ কর।

উপরোক্ত তথ্য অনুযায়ী মাসি পিসি গল্পের সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর সম্পর্কিত এই আর্টিকেলে সৃজনশীল প্রশ্নগুলো কেমন হতে পারে তা আপনি দেখে নিয়েছেন। চলুন এবার তবে প্রশ্নের উত্তর সমাধান গুলোও PDF সহ দেখে নেওয়া যাক।

সৃজনশীল প্রশ্ন নম্বর ১ এর উত্তর সমূহ

ক উত্তরঃ অল্পদিন আগে বুড়াে রহমানের মেয়েটা শ্বশুরবাড়িতে মরেছে।

খ উত্তরঃ আহ্লাদির ওপর নির্মম নির্যাতন চালিয়ে জগু পৈশাচিক আনন্দ পেত।

মাসি-পিসি’ গল্পে আদি তার স্বামীর দ্বারা নানাভাবে নির্যাতিত হয়। তার স্বামী জগুর আচরণ অত্যন্ত পাশবিক হওয়ার কারণে মাসি-পিসি আহ্লাদিকে তার স্বামীর বাড়ি যেতে দেয় না। জগু হীন স্বভাবের লােক। সে বিকৃত মস্তিষ্কের অধিকারী, মায়ামমতাহীন এক উন্মাদ যুবক। তার চিন্তায় কোনাে ভালাে কাজের প্রতিফলন ঘটে না। স্ত্রীর প্রতি সে চরম উদাসীন ও নির্মম। সে আহ্লাদির ওপর নির্মম অত্যাচার চালিয়ে আনন্দ পায়।

সারকথা : আহ্লাদির স্বামী জগু অত্যন্ত হীন স্বভাবের হওয়ায় স্ত্রীর ওপর অমানবিক নির্যাতন চালিয়ে পৈশাচিক আনন্দ পেত।।

গ উত্তরঃ উদ্দীপকের বুজির ওপর নির্যাতনের সঙ্গে মাসি-পিসি’ গল্পের আহ্লাদির ওপর নির্যাতনের ধরনের দিক থেকে বৈসাদৃশ্যপূর্ণ। • স্বামীর গৃহে নারীরা নানা নির্যাতনের শিকার হয়। কোনাে কোনাে স্বামী তাদের স্ত্রীদের শারীরিক নির্যাতন করে। আবার কখনাে

কখনাে তারা মানসিক নির্যাতনের শিকার হয়। তারা মুখে বিভিন্ন ধরনের কটাক্ষ ও কটু কথায় স্ত্রীকে মানসিক নির্যাতন করে। ও উদ্দীপকের বুজির শ্বশুরবাড়ির লােকেরা বুজিকে শারীরিক নির্যাতন না করে মানসিক নির্যাতন করত। তারা বুজিকে হাতে না।

See also  বঙ্গবাণী কবিতার সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর ২০২২

মেরে ঠোটে অর্থাৎ কটু কথায় নির্যাতন করত। নির্যাতনের এ ধরনটির সঙ্গে মাসি-পিসি’ গল্পের আহ্লাদিকে শারীরিক নির্যাতনের বিষয়টি বৈসাদৃশ্যপূর্ণ। আদির স্বামী শারীরিক নির্যাতন করার সময় অত্যন্ত নির্মম ও অমানবিক আচরণ করত। সে আহ্লাদিকে অশ্লীল কথা বলে মানসিক যন্ত্রণায়ও দগ্ধ করত। এভাবে উদ্দীপকের বুজির ওপর যে মানসিক নির্যাতন চালানাে হতাে তার সঙ্গে মাসি-পিসি’ গল্পের আহ্লাদির ওপর চালানাে শারীরিক ও মানসিক যন্ত্রণার বিষয়টি বৈসাদৃশ্যপূর্ণ।

সারকথা : উদ্দীপকের বুজির প্রতি নির্যাতন মানসিক হলেও আহ্লাদির ওপর মানসিক ও শারীরিক দুই ধরনের নির্যাতনই করা হতাে।

হুবুহু সৃজনশীল প্রশ্ন খবুই কম কমন পড়তে দেখা যায় । তাই এই পোষ্ট মাসি পিসি গল্পের সৃজনশীল প্রশ্ন উত্তর pdf এর পাশাপাশি মূল বই থেকে এ সম্পর্কিত আরও বিষয়বলী গুলো ধারণা রাখুন। এতে করে যেভাবেই প্রশ্ন আসুক যাতে আপনি উত্তর দিতে পারেন। চলুন বাকী অংশ পড়ে নেওয়া যাক।

ঘ উত্তরঃ নারীর প্রতি পুরুষের অমানবিকতার প্রামাণ্য দলিল উদ্দীপক ও ‘মাসি-পিসি’ গল্পের বধূদের ওপর নির্যাতন।- মন্তব্যটি যথার্থ। ০ পুরুষশাসিত সমাজে নারীরা নানাভাবে অবহেলা ও নির্যাতনের শিকার হয়ে থাকে। এর প্রধান কারণ এ ধরনের সমাজ ব্যবস্থায়

পুরুষরাই প্রধান এবং সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী। ফলে নারীরা শারীরিক ও মানসিকভাবে পুরুষদের দ্বারা নিগৃহীত হয়। উদ্দীপকে শ্বশুরবাড়িতে এক নারীর মানসিক নির্যাতনের শিকার হয়ে যন্ত্রণাকাতর হওয়ার দিকটি তুলে ধরা হয়েছে। মেয়েটিকে তারা শারীরিক নির্যাতন না করলেও মানসিক নির্যাতন করে কষ্ট দিত। শ্বশুরবাড়ির কেউ তাকে ভালােবাসত না। মাসি-পিসি’ গল্পেও আহ্লাদির স্বামী আহ্লাদিকে শরীরিক ও মানসিক নির্যাতন করত। বিনা কারণে সে আহ্লাদিকে প্রহার করত, অশ্লীল গালাগালি দিত। এ গল্পে বুড়াে রহমানের মেয়েও শ্বশুরবাড়ির অত্যাচার-নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। বাঙালি সমাজে গৃহবধূরা শাশুড়ি-ননদির নির্যাতনেরও শিকার হয়ে থাকে। তারা বিভিন্নভাবে বাড়ির বউদের ওপর অত্যাচারনির্যাতন করে থাকে। উদ্দীপকের বুজি যেমন এই নিগ্রহের শিকার তেমনই ‘মাসি-পিসি’ গল্পের আহ্লাদি, বুড়াে রহমানের মেয়েও অনুরূপ নিগ্রহের শিকার। এসব দিক বিচারে উদ্দীপক ও ‘মাসি-পিসি’ গল্পের নারীর প্রতি পুরুষতান্ত্রিক সমাজের অমানবিকতার প্রামাণ্য দলিল হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে।

সারকথা : উদ্দীপকের বুজি ও ‘মাসি-পিসি’ গল্পের প্রায় সব নারী চরিত্রই পুরুষ দ্বারা শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতিত। তাই এ দুটিকে 9 নারীদের প্রতি অমানবিকতার প্রামাণ্য দলিল হিসেবে অভিহিত করা হয়েছে।

See also  তোমাকে পাওয়ার জন্য হে স্বাধীনতা কবিতার সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর

প্রিয় পাঠক আপনি ইতিমধ্যে আমাদের সাইটের মাধ্যমে মাসি পিসি গল্পের সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর ১টি পূর্ণাঙ্গ সম্পন্ন করেছেন। চলুন এ সম্পর্কিত আরও একটি দেখে নেওয়া যাক।

মাসি পিসি গল্পের সৃজনশীল প্রশ্নের উত্তর

সৃজনশীল প্রশ্ন নম্বর ২

কারও লড়াই বাচার জন্য। কারও আবার বাঁচাটাই লড়াই করার জন্য। এভাবেই জীবনের একটা বড় অংশ কাটিয়ে দিয়েছেন মেদিনীপুর শহরের দিপালী দে এবং ফুলেশ্বরী মণ্ডল। পরিবারের অন্নসংস্থানের জন্য এই দুই নারী বেছে নিয়েছেন এমন পথ। সচরাচর মহিলাদের যে পথে হাঁটতে দেখা যায় না। সাইকেলে চড়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে খবরের কাগজ বিক্রি করেন তাঁরা। ভাের থেকে দুপুর। এক পাড়া থেকে অন্য পাড়া। টানা ৩০ বছর।

ক. কাছারিবাড়ি যেতে হবে একবার’- কথাটি কে বলেছিল?

খ. মাসি-পিসি’ গল্পের মূল কাহিনি ব্যাখ্যা কর। 

গ. উদ্দীপকের দিপালী এবং ফুলেশ্বরী ‘মাসি-পিসি’ গল্পের মাসি-পিসির সঙ্গে কীভাবে সাদৃশ্যপূর্ণ? 

ঘ. “সাদৃশ্য থাকলেও দিপালী এবং ফুলেশ্বরী সম্পূর্ণভাবে মাসি-পিসি হয়ে উঠতে পারেননি।”- মন্তব্যটির যথার্থতা প্রমাণ কর।

সৃজনশীল প্রশ্ন নম্বর ২ এর উত্তর সমূহ

ক উত্তরঃ কাছারিবাড়ি যেতে হবে একবার’- কথাটি মাসি-পিসিকে উদ্দেশ্য করে কানাই বলেছিল।

খ উত্তরঃ মাসি-পিসি’ গল্পটি স্বামীর নির্মম নির্যাতনের শিকার পিতৃমাতৃহীন এক তরুণীর জীবনকাহিনি নিয়ে রচিত হয়েছে। আহ্লাদি নামক এক তরুণীর মাসি ও পিসি দুইজন বিধবা ও নিঃস্ব। তারা তাদের অস্তিত্ব রক্ষার পাশাপাশি বিরূপ বিশ্ব থেকে। আহ্লাদিকে রক্ষার জন্য বুদ্ধিদীপ্ত ও সাহসী ভূমিকা পালন করে। এটাই গল্পটির মূল কাহিনি।

অত্যাচারী স্বামী এবং লালসা-উন্মত্ত জোতদার, দারােগা ও গুণ্ডা-বদমাশদের আক্রমণ থেকে আহ্লাদিকে নিরাপদে রাখার ক্ষেত্রে অসহায় দুই বিধবার দায়িত্বশীল ও মানবিক জীবনযুদ্ধ এই গল্পের মূল উপজীব্য। দুর্ভিক্ষের মর্মস্পর্শী স্মৃতি, জীবিকা নির্বাহের কঠিন সংগ্রাম, নারী হয়ে নৌকা চালনা ও সবজির ব্যবসায় পরিচালনা প্রভৃতি এই গল্পের বৈচিত্র্যময় দিক।

সারকথা : শহরে গিয়ে তরিতরকারি, ফলমূল বিক্রি করে রােজগার করার প্রস্তাবে পিসি রাজি হয়েছিল।

গ উত্তরঃ উদ্দীপকের দিপালী আর ফুলেশ্বরী ‘মাসি-পিসি’ গল্পের মাসি-পিসির সঙ্গে জীবনযুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার দিক দিয়ে সাদৃশ্যপূর্ণ।  বহুকাল থেকেই নারীরা সমাজে নানা অবহেলা ও নির্যাতনের শিকার হয়ে আসছে। তারা বিভিন্ন সমস্যা-সংকট মােকাবিলা করেই সমাজে টিকে থাকে।

এই নির্দয়-নিষ্ঠুর সমাজে তারা আজীবন অস্তিত্ব রক্ষার চেষ্টা ব্যাপিত থাকে। সমাজ তাদের কোনাে সহায়তা তাে করেই না, উপরন্তু তাদের সর্বনাশ করতে চায়। উদ্দীপকে ফুলেশ্বরী ও দিপালী নামের দুজন নারীর সাহস ও তাদের জীবনযুদ্ধে টিকে থাকার দিকটি তুলে ধরা হয়েছে। তারা শহর থেকে খবরের কাগজ এনে বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিক্রি করে সংসার চালায়। এই দিকটি মাসি-পিসি’ গল্পের মাসি-পিসির জীবনযুদ্ধের সঙ্গে মিলে যায়।

See also  রেইনকোট গল্পের সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর

মাসি-পিসিও গ্রাম থেকে তরিতরকারি ফলমূল নিয়ে শহরের বাজারে বিক্রি করে জীবনসংগ্রামে টিকে থাকে। এর পাশাপাশি তারা অসহায় আহ্লাদিকে রক্ষা করে নিষ্ঠুর সমাজের হাত থেকে। মাসি-পিসির এই জীবনযুদ্ধের সঙ্গে উদ্দীপকের দিপালী ও ফুলেশ্বরীর জীবনযুদ্ধের মিল আছে।

সারকথা : গল্পের মাসি-পিসি তাদের অস্তিত্ব রক্ষার জন্য নিরন্তর সংগ্রাম করে। তাদের এই জীবনযুদ্ধের সঙ্গে উদ্দীপকের দিপালী ও ফুলেশ্বরীর জীবনযুদ্ধের সাদৃশ্য বিদ্যমান।

আপনি এই পোষ্টে মাসি পিসি গল্পের সৃজনশীল প্রশ্নের উত্তর  নিয়ে পড়তেছেন। এটি পূর্ণাঙ্গ পড়া শেষে আপনি এ সম্পর্কিত আরও পাঠ্য আমাদের সাইটে খুঁজে পেতে সার্চ বক্সে অনুসন্ধান করতে পারেন। চলুন বাকী অংশ পড়ে নেওয়া যাক।

ঘ উত্তরঃ “সাদৃশ্য থাকলেও দিপালী এবং ফুলেশ্বরী সম্পূর্ণভাবে মাসি-পিসি হয়ে উঠতে পারেননি।”- মন্তব্যটি যথার্থ।  পুরুষতান্ত্রিক সমাজব্যবস্থায় নারীরা অনেক সময় তাদের প্রাপ্য অধিকার থেকে বঞিত হয়। তারা ন্যূনতম চাহিদা মেটাতেই হিমশিম খায়। প্রতিনিয়তই তাদেরকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন সহ্য করতে হয়। 

উদ্দীপকে দুজন সংগ্রামী নারীর কথা বলা হয়েছে। দিপালী ও ফুলেশ্বরী দরিদ্রতাকে ভয় না পেয়ে বাঁচার জন্য সংগ্রাম করেছেন । শহর থেকে খবরের কাগজ এনে বাড়ি বাড়ি বিক্রি করে সংসার চালিয়েছে। তাদের এই জীবনসংগ্রাম ‘মাসি-পিসি’ গল্পের মাসিপিসির জীবনসংগ্রামের সঙ্গে সাদৃশ্যপূর্ণ। তবে তারা সম্পূর্ণভাবে মাসি-পিসি হয়ে উঠতে পারেননি। কারণ অসহায় আত্মদিকে আশ্রয়, আহার ও নিরাপত্তা দিতে তারা যে ভূমিকা পালন করেছে তা এখানে নেই।

‘মাসি-পিসি’ গল্পের মাসি-পিসি বিধবা ও নিঃস্ব। তারা তাদের অস্তিত্ব রক্ষার পাশাপাশি বিরূপ বিশ্ব থেকে আহ্লাদিকে রক্ষার জন্য যে বুদ্ধি ও সাহসের পরিচয় দিয়েছে তা উদ্দীপকের দিপালী ও ফুলেশ্বরীর মাঝে অনুপস্থিত। তাই বলা যায়, প্রশ্নোক্ত মন্তব্যটি যথার্থ।

সারকথা : উদ্দীপকের দিপালী ও ফুলেশ্বরীর মাসি-পিসির জীবনসংগ্রামের সঙ্গে মিল রয়েছে; তবে মাসি-পিসির অন্যান্য বৈশিষ্ট্য তাদের মধ্যে প্রতিফলিত না হওয়ায় প্রশ্নোক্ত মন্তব্যটি যথার্থ ।

আশাকরি আপনার কাঙ্খিত অনুসন্ধান মাসি পিসি গল্পের সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর আমাদের সাইটের মাধ্যমে খুঁজে পেতে সক্ষম হয়েছেন। শিক্ষামূলক পোষ্ট পেতে নিয়মিত ভিজিট করুন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button